পঞ্চগড়ে নির্দেশনা অমান্য করেই স্কুলে চলছে কোচিং বাণিজ্য 

শিক্ষা
মোঃ বাবুল হোসেন পঞ্চগড় 
 সরকারী নিদের্শনা অমান্য করে পঞ্চগড় সদর উপজেলার দশ মাইল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় খুলে কোন প্রকার তোয়াক্কা না করে দুইটি ক্লাশরুমে প্রায় ৭০জন শিক্ষার্থীদের নিয়ে ওই স্কুলের শিক্ষকরা চালাচ্ছে প্রতিনিয়ত ক্লাশ। ওই বিদ্যালয়ে সরেজিমেন গিয়ে দেখা গেছে,বিদ্যালয় খুলে শিক্ষকরা রীতি মতো দুইটি ক্লাশরুমে প্রায় ৭০ জন শিক্ষার্থীদের নিয়ে প্রাইভেট বাণিজ্য করছে। গনমাধ্যম কর্মিরা সেই স্কুলে প্রবেশ করলে ক্যামেরা দেখার সাথে সাথে ওই স্কুলের সহকারী শিক্ষক নুর নেহার সুলতানা বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ক্লাশরুম রেখে কেটে পড়েন। এবং গণিত শিক্ষক মামুন ক্লাশ রুমে উপস্থিত থেকে প্রাইভেট পড়াচ্ছিলেন। তবে শিক্ষার্থীরা জানায় আমরা বিদ্যালযের শ্রেণী কক্ষে শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়তেছি। শিক্ষক মামুন বলেন, সরকারি ভাবে সকল বিদ্যালয় বন্ধ ঘোষনা করে দিয়েছে সরকার এটা সত্য। শিক্ষার্থীর বাড়িতে পড়া-শুনা করে না তাই শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে এনে পড়া লেখা যেন ঠিক থাকে এ জন্য পড়ানো হচ্ছে বিদ্যালয় কক্ষে। তবে নিউজ না করার জন্য সাংবাদিকদের অনুরোধ করেন। এদিকে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোফাজ্জল হোসেন প্রধান আজাদ বলেন, সরকারি ভাবে সকল বিদ্যালয় বন্ধ করে দিয়েছে সরকার।
এক বছর হচ্ছে বিদ্যালয় তো বন্ধ। তবে শিক্ষার্থীরা বাড়িতে পড়া-শুনা করে না। অভিভাবকদের সাথে আলোচনা করে শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়ানো হচ্ছে। তবে নিউজ করলে বিদ্যালয়ের ক্ষতি হবে।
এবিষয়ে জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার (ভারপ্রাপÍ) মো: সাইফুল ইসলাম প্রামানিক তিনি জানান দশ মাইল বালিকা বিদ্যালয়ে যে তারা নিয়মবহির্ভূত ভাবে ক্লাস করছে এটা আমি জানতে পারলাম প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যাবস্থার গ্রহনের জন্য প্রধান শিক্ষককে কারন দর্শাবো এবং বিষয়টি উর্দ্ধতন কতৃপক্ষকে অবগত করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *