পাবনায় বৈদ্যুতিক খুঁটির সাথে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় এসপি’র নির্দেশে অভিযুক্ত ব্যক্তি আটক

রাজশাহী সারাদেশ
স্টাফ রিপোর্টারঃ
পাবনার ঈশ্বরদীতে দুই ভাইকে বৈদ্যুতিক খুঁটির সাথে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনায় পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খান বিপিএম’র নির্দেশে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ।
পুলিশ জানায়, গত ২৯এপ্রিল দুপুরে পাবনা জেলার ঈশ্বরদী থানার সাহাপুর ইউনিয়ন আওতাপাড়া নুরজাহান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে ভিলেজ ফ্রেশ ফুড এন্ড এগ্রো কোম্পানি মালিক জিসান(৩৫), তার প্রতিষ্ঠানে ভেজাল মধু সংগ্রহের অভিযোগ তুলে দাশুড়িয়া ইউনিয়নের আল আমিন(২২) ও তার ছোট ভাইকে প্রতিষ্ঠানের সামনে আলাউদ্দিন বিশ্বাসের মিলের চাতালের বৈদ্যুতিক খুঁটির সাথে বেঁধে শারীরিক নির্যাতন ও চুল কেটে দেয়।
জানা গেছে, ভিলেজ ফুড এন্ড এগ্রো নামক প্রতিষ্ঠানটিতে তেল, ডাল, মধুসহ বিভিন্ন পণ্য প্যাকেটজাত করে পাইকারিভাবে বিক্রয় করে থাকে। আলামিন এবং আলাল  দুই ভাই পেশায় মধু সংগ্রহকারী এবং তারা প্রায় এক বছর যাবত উক্ত প্রতিষ্ঠানটি মধু বিক্রয় করে আসছিল। প্রতিষ্ঠানের মালিকের অভিযোগ প্রথমদিকে তারা দুই ভাই খাঁটি মধু সংগ্রহ করলেও পরবর্তীতে তারা প্রতিষ্ঠানে ভেজাল মধু বিক্রয় করে। বিষয়টি দুই ভাইকে অবগত করলে তারা এর ক্ষতিপূরণ বাবদ গতকাল ১০কেজি মধু প্রতিষ্ঠানটিতে নিয়ে আসে। প্রতিষ্ঠানের মালিক জিসান তাদের দুই ভাইকে একসাথে পেয়ে পূর্বের মধুর সকল টাকা দাবি করেন এবং দুই ভাইকে প্রতিষ্ঠানের সামনে বৈদ্যুতিক খুঁটির সাথে বেঁধে মারপিট করেন এবং মাথায় মধু ঢেলে দিয়ে চুল কেটে দেন। বিষয়টি সমাজের বিভিন্ন শ্রেণীর লোকজনের নজরে আসলে প্রতিষ্ঠানের মালিক ও অন্যান্য লোকজন আল আমিন এবং আলালের অভিভাবকদের ঘটনাস্থলে ডেকে তাদের দুজনকে বুঝিয়ে দেন। আলামিন এবং আলাল অত্যন্ত গরীব ঘরের সন্তান। অন্যের জমিতে ঘর বানিয়ে বসবাস করেন। মা একজন ভিখারি। এই দুই ভাইকে এভাবে বৈদ্যুতিক খুঁটির সাথে বেঁধে শারীরিক নির্যাতন এবং চুল কেঁটে দেওয়ার ঘটনাটি পুলিশ সুপার পাবনা জানতে পেরে অফিসার ইনচার্জ ঈশ্বরদী থানাকে উক্ত বিষয়ে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ প্রদান করেন।তদপ্রেক্ষিতে অনুসন্ধান করে ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় নির্যাতনকারী জিসান কে আজ গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। এ বিষয়ে ঈশ্বরদী থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খান বিপিএম জানান, বিষয়টি জানার পর অভিযুক্ত ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে।কেউ অপরাধ করলে তাকে আইনের আওতায় আনা হবে।যেকোন প্রয়োজনে পুলিশী সহায়তা পেতে ৯৯৯এ ফোন করার আহবান জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *