জ্ঞান-বিজ্ঞান শিল্প-সংস্কৃতিতে বাঙালিরা অনেক এগিয়ে : তথ্যমন্ত্রী

জাতীয়

দৈনিক সকালের বাংলা ডেস্কঃ  তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, জ্ঞান-বিজ্ঞান শিল্প-সংস্কৃতিতে বাঙালিরা বিশ্বের অনেক জনগোষ্ঠির চেয়ে অনেক দূর এগিয়ে রয়েছে এবং এই অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে সমাজে গুণীজনদের সম্মানিত করতে হবে, নাহলে গুণীদের জন্ম হবেনা।
আজ সন্ধ্যায় রাজধানীর শাহবাগে ঢাকা ক্লাবের স্যামসন এইচ চৌধুরী সেন্টারে টেলিভিশন রিপোর্টার্স ইউনিটি অভ বাংলাদেশ-ট্রাব আয়োজিত ২৭তম ট্রাব অ্যাওয়ার্ড ২০২১ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন। সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন। বিনোদন বিচিত্রা সম্পাদক দেওয়ান হাবিবুর রহমান ও এটিএন বাংলার অনুষ্ঠান উপদেষ্টা তাশিক আহমেদ এসময় বক্তৃতা করেন।
তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বলেন, জাতিগত উন্নয়নের জন্য বস্তুগত বা অবকাঠামোগত উন্নয়নের পাশাপাশি প্রয়োজন আত্মিক উন্নয়ন। ইউরোপের বাইরে প্রথম সাহিত্যে নোবেল বিজয়ী বাঙালি বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, গাছের প্রাণ আবিষ্কার করেছেন বাঙালি বিজ্ঞানী জগদীশ চন্দ্র বসু। বাঙালিরা জ্ঞান-বিজ্ঞান কৃষ্টি সংস্কৃতিতে যেমন আগে থেকেই এগিয়ে, এখন অর্থনীতিতেও বাংলাদেশ বিশ্বের ৩১তম দেশের স্থান অর্জন করেছে, মাথাপিছু আয়ে ২০১৫ সালে পাকিস্তানকে ছাড়িয়েছে এবং বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অগ্রযাত্রা অব্যাহত রয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৬ সালে দেশ পরিচালনার দায়িত্ব পাবার পর তাঁর হাতেই বেসরকারি টেলিভিশনের সূচনার কথা স্মরণ করিয়ে ড. হাছান বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে গণমাধ্যমের অভূতপূর্ব প্রসার ঘটেছে, যা গণতন্ত্র বিকাশের অন্যতম সহায়ক।
ট্রাব সভাপতি সালাম মাহমুদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজাম, পরিবেশবিদ ও চ্যানেল আই টেলিভিশনের পরিচালক মুকিত মজুমদার, নিরাপদ সড়ক চাই সংগঠনের সভাপতি চিত্রতারকা ইলিয়াস কাঞ্চন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. হামিদা খানম এবং প্রয়াত অভিনেতা মাহমুদ সাজ্জাদকে (মরণোত্তর) ট্রাব লাইফটাইম এচিভমেন্ট সম্মাননায় ভূষিত করেন অতিথিবৃন্দ।
এসময় এটিএন বাংলা ও এটিএন নিউজের চেয়ারম্যান ড. মাহফুজুর রহমান ও গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলমকে বিশেষ সম্মাননা এবং জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক চিন্ময় মুৎসুদ্দীকে আহমেদ জামান স্মৃতি পুরস্কার ও নাট্যব্যক্তিত্ব আতাউর রহমানকে সৈয়দ শামসুল হক স্মৃতি পুরস্কারে ভূষিত করা হয়।
এছাড়া ‘বিশ্বসুন্দরী’কে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র, ‘এখানে তো কোনো ভুল ছিল না’ চলচ্চিত্রকে শ্রেষ্ঠ টেলিফিল্ম, ‘দ্রৌপদী পরম্পরা’কে শ্রেষ্ঠ মঞ্চনাটকসহ প্রায় ৭৫ জন নির্বাচিতদের হাতে চলচ্চিত্র, টেলিভিশন, সংগীত, নৃত্য, উপস্থাপনা, মঞ্চনাটক, সাংবাদিকতা বিভাগ ও বিশেষ পুরস্কার তুলে দেন ট্রাব নেতারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *