সিরাজগঞ্জে লাইট হাউসের উদ্যোগে এইচআইভি ও এইডস প্রতিরোধ বিষয়ক সচেতনামূলক সভা অনু্ষ্ঠিত।

সারাদেশ

আজিজুর রহমান মুন্না, সিরাজগঞ্জ ঃ   সিরাজগঞ্জে লাইট হাউসের উদ্যোগে- এইচআইভি ও এইডস প্রতিরোধ বিষয়ক সচেতনামূলক সভা অনু্ষ্ঠিত।   

 সোমবার( ২৯  নভেম্বর)  সকালে সির্ভিল সার্জেন অফিস হলরুমে -বেসরকারী ও মানবাধিকার উন্নয়ন সংস্থা লাইট হাউসের আয়োজনে ,আইসিডিডিআরবির কারীগরি সহায়তায় ও দি গ্লোবাল ফান্ডের আর্থিক সহযোগিতায় পরিচালিত, প্রায়োরাটাইজড এইচআইভি প্রিভেনশন এন্ড ট্রিটমেন্ট সার্ভিসেস ফর কি পপুলেশন ইন বাংলাদেশ প্রকল্পের কার্যক্রম ,লক্ষিত জনগোষ্টির সঠিক সেবা ও অধিকার রক্ষায় স্থানীয় আইন প্রয়োগকারী সংস্থা, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, এনজিও প্রতিনিধি, ধর্মীয়নেতা, শিক্ষক, আইনজীবি, স্বাস্থ্য সেবাপ্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ও মানবাধিকারকর্মীদের সমন্বয়ে, জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সভাকক্ষে এইচআইভি/এইডস প্রতিরোধ বিষয়ক সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়ছে। 

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্যে রাখেন, সির্ভিল সার্জন ডাঃ রামপদ রায় । 

 বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,  অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল মোঃ জসিম উদ্দিন চৌধুরী পিপিএম, রির্সোস পার্সোন   সহকারী কমিশনার জেলা প্রশাসকের কার্যালয় জাকিয়া   সুলতানা, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ সামছুল হক,     সিরাজগঞ্জ মহিলা সংস্হার সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট সামিয়া ইয়াসমিন রিমা, সিরাজগঞ্জ ব্রাক জেলা কো-অর্ডিনেটর মোঃ রইস উদ্দিন প্রমূখ। 
   সচেতনতামূলক  অ্যাডভোকেসী  সভায় লাইট হাউস সংস্থার পরিচিতি ও প্রকল্পের লক্ষ্য , উদ্দেশ্য , প্রকল্পের কার্যক্রম সম্পর্কে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন,  সাব ডিআইসি ইনচার্জ লাইট হাউস সিরাজগঞ্জ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম। 

মুক্ত আলোচনায় অংশ নিয়ে অংশগ্রহণকারীগণ প্রকল্পের কার্যক্রম সম্পর্কে বিভিন্ন প্রশ্ন করেন এবং চলমান কার্যক্রম সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করার জন্য বিভিন্ন পরামর্শ দেন। অংশগ্রহণকারীগণের প্রশ্নের উত্তর দেন সভার প্রধান অতিথি  সিভিল সার্জন ডাঃ  রামপদ রায়। 
অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি   এইচআইভি/এইডস প্রতিরোধে যে সকল উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠীদের নিয়ে কাজ করছে তাদের নিয়ে কাজ করা খুব কঠিন্। তিনি আরও বলেন, এই কার্যক্রম বাস্তবায়ন করতে যদি কোন সমস্যা হয় তাহলে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সহযোগিতা করা হবে ।

প্রধান অতিথি সিভিল সার্জন বলেন, লাইট হাউস এইচআইভি/এইডস প্রতিরোধে ঝুঁকিপূর্ণ পূরুষ , মহিলা যৌনকর্মী এবং হিজড়া জনগোষ্ঠী নিয়ে সাতক্ষীরা জেলায় দীর্ঘদিন যাবৎ কাজ করছে। এই প্রকল্পের লক্ষিত জনগোষ্ঠী আসলে পরিবার এবং সমাজের অবহেলিত এবং এইচআইভির জন্য অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ।

তারপর তিনি বাংলাদেশের এইচআইভি এইডসের বর্তমান পরিসংখ্যান তুলে ধরেন  এইচআইভি পজিটিভ ব্যক্তি রয়েছে। এই সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলছে। তাই আমাদের সকলের উচিত  এই প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়নে সহযোগিতা করা।

এই প্রকল্পের কোন বেনিফিসিয়ারীর যদি কোন চিকিৎসা সেবার প্রয়োজন হয়, তাহলে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতাল থেকে দেওয়া ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে আশ্বাস প্রদান করে। সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সাব-ডিআইসি ইনচার্জ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *