টেকনাফে অপহৃত সেই ৩ বন্ধুর মরদেহ উদ্ধার

ক্রাইম রিপোর্ট
কায়সার হামিদ মানিক,কক্সবাজার। 
কক্সবাজারের টেকনাফে পাত্রী দেখতে গিয়ে অপহরণ হওয়া তিন বন্ধুর অর্ধ-গলিত লাশ উদ্ধার করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। 
বুধবার (২৪ মে) দুপুরে উপজেলার দমদমিয়া পাহাড়ি এলাকা থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করে র‌্যাব ও পুলিশের দুটি টিম।
নিহত তিন বন্ধু হলেন- ঈদগাঁও উপজেলার জালালাবাদ সওদাগর পাড়া এলাকার মোহাম্মদ ইউসুফ, চৌফলদন্ডী ইউনিয়নের রুবেল ও কক্সবাজার শহরের নুনিয়াছড়া এলাকার ইমরান।
নিহতদের পারিবার সূত্রে জানা যায়, গত ২৮ এপ্রিল টেকনাফে পাত্রী দেখতে যান তিন বন্ধু। পথিমধ্যে তাদের সিএনজি চালিত অটোরিকশা থামিয়ে অপহরণ করা হয়। পরে তাদের পাহাড়ের গহীন জঙ্গলে নিয়ে যায় অপহরণকারীরা। তাদের ছেড়ে দিতে ৩০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে পরিবারের কাছে নির্যাতনের ভিডিও পাঠায় অপহরণকারী চক্রটি।
ঘটনার পর থেকে পরিবারের সদস্যরা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাথে যোগাযোগ করেন। কিন্তু গহীন জঙ্গল এবং অপহরণকারীরা বারবার স্থান পরিবর্তন করায় তাদের উদ্ধার এবং জড়িত কাউকে আটক করা যায়নি। পরে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ঘটনায় জড়িত একজনকে আটক করে র‌্যাব। আটককৃত ব্যক্তির স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ঘটনাস্থলে পৌঁছে তিন বন্ধুর লাশের সন্ধান মেলে। 
টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল হালিম বলেন, আটককৃত ব্যক্তিকে সঙ্গে নিয়ে টেকনাফের গভীর জঙ্গলে অভিযান চালানো হয়। এসময় তিন জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। লাশগুলোর সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরী করে মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।
প্রসঙ্গত, গত ২৮ এপ্রিল রুবেল বিয়ের জন্য পাত্রী দেখতে যান টেকনাফ। এসময় তার দুই বন্ধুও সঙ্গে ছিলেন। উপজেলার রাজারছড়া ফরেস্ট অফিস নামক স্থান থেকে তাদের অপহরণ করা হয়। পরে ৩০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে অপহরণকারীরা। মুক্তিপণের টাকা দিতে না পারায় অপহরণকারীরা তিনজনকে নির্যাতন করার ভিডিও মোবাইল ফোনে ধারণ করে তাদের পরিবারের কাছে পাঠান। অবশেষে সেই বন্ধুদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *