1. admin@sokalerbangla.com : সকালের বাংলা :
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০১:৩৮ পূর্বাহ্ন
শিরবাম:
ঈদুল আযহা’র শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মানবতার ফেরিওয়ালা যুবলীগ নেতা নূরুল আমীন সরকার সাভারে হত্যা মামলার আসামী সিরিয়াল কিলার স্বপনকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ  সিরাজগঞ্জ ভিক্টোরিয়া হাইস্কুলে বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনাসভা, বৃক্ষ বিতরণ,রোপণ ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত।  রাণীশংকৈলে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুনামেন্ট রশি দিয়ে খেলা পরিচালনা- আ’লীগ ও মুক্তিযুদ্ধাদের ক্ষোভ  আশুলিয়ায় সরকারি নয়নজুলি’ খালসহ ৮টি খাল প্রভাবশালীদের দখলে—জলাবদ্ধতায় বাড়ছে জনদুর্ভোগ   সবাইকে ঈদুল আযহা’র শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আনারুল ইসলাম আকাশ! সবাইকে ঈদুল আযহা’র শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা মোকলেছুর রহমান মোল্লা! সবাইকে ঈদুল আজহা’র শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তরুণ উদ্যোক্তা বিশিষ্ট ব্যবসায়ী রোমান ভুঁইয়া ঈদে পশুর হাটের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে-ডিএমপি কমিশনার আশুলিয়ায় তিতাস গ্যাসের এক হাজার বাসা বাড়ির অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন!

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে কাঁচা সড়ক স্বাধীনতার ৫২ বছরে ও হয়নি

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ১১৮ Time View

নাজমুল হোসেন, নিজস্ব প্রতিবেদক :

 

লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলার চন্ডিপুর ইউনিয়নের মাসিমপুর বাজার থেকে ফোরকানিয়া খালপাড় পর্যন্ত ৭০০ মিটার কাঁচা সড়ক। এই সড়কটি পাকা হবে এই আশায় এলাকাবাসী দেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে বছরের পর বছর অপেক্ষায় থেকেছেন। কিন্তু বারবার জনপ্রতিনিধিরা প্রতিশ্রুতি দিলেও বীর মুক্তিযোদ্ধা আক্তারুজ্জামান নামে সড়কটি পাকা সড়ক হয়নি। এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন স্কুল শিক্ষার্থী, নারী ও বৃদ্ধাসহ হাজারো মানুষ দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। সড়কটি কাঁচা হওয়ায় কেউ অসুস্থ হলে অনেক কষ্ট করে তাকে চিকিৎসা কেন্দ্রে যেতে হয়।

 

স্থানীয় লোকজন জানান, এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন হাজারো মানুষকে যাতায়াত করতে হয়। দেশ স্বাধীন হওয়ার আগে থেকেই রাস্তাটি কাঁচা সড়ক। মহান মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বগাঁথা অবদানের জন্য স্বাধীনতার পর সড়কটি নামকরণ করা হয় এলাকার কৃতি সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধা আক্তারুজ্জামান নামে। তার জীবদ্দশায় সড়কটি পাকা দেখে যেতে পারেননি তিনি। বর্তমানে বর্ষার সময় একটু বৃষ্টিতেই সড়কটি কাদা-মাটিতে চলাচলের অনূপযোগী হয়ে পড়ে। রিকশা, ভ্যান, সাইকেল, মোটরসাইকেল চলাচলও কঠিন হয়ে পড়ে। পায়ে হেঁটে চলতে গিয়েও কষ্টের শিকার হন এলাকাবাসী। বিকল্প কোনো সড়ক না থাকায় গ্রামবাসী বাধ্য হয়ে কাদা-মাটি সড়ক দিয়ে চলাচল করতে হয়।

 

তাজুল ইসলাম নামে এক বাসিন্দা বলেন, ‘আমরা বহু আশা করেছিলাম আমাদের রাস্তাটি পাকা হবে। বর্ষার সময় বাচ্চারা স্কুল-মাদ্রাসায় যেতে পারে না। বৃষ্টি হলে এক হাঁটু-পানি হয়। আমরা ঘর থেকে বের হতে পারি না। চিকিৎসার জন্য পাশে থাকা কমিউনিটি ক্লিনিকেও যাওয়া সম্ভব হয় না।’

 

স্থানীয় এমরান হোসেন নামে আরেক জন বলেন, ‘এই রাস্তার বয়স ৬০-৭০ বছর। একজন মুক্তিযোদ্ধার নামে সড়কটির নামকরণ করা হয়েছে। বর্ষার সময় মানুষ হাঁটতে পারে না, চলতে পারে না। কেউ অসুস্থ হলে একটা অ্যাম্বুলেন্স যে প্রবেশ করবে তার ব্যবস্থা নেই। গ্রামবাসী চাঁদা তুলে রাস্তার সংস্কার করি।’

 

রামগঞ্জের স্থানীয় ইউপি সদস্য ফজলুল কবির বলেন, ‘আমরা কাঁচা রাস্তা দিয়ে চলাচল করি। বর্ষা হলে কাদা-পানি জমে থাকে। রিকশায় করে চলাচল করা যায় না। এমনকি এক বস্তা চালও বাড়িতে নেওয়া সম্ভব হয় না। বিষয়টি একাধিকবার পরিষদে বলেও কাজ হয়নি।’

 

রামগঞ্জের চন্ডিপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান সামছুল ইসলাম সুমন বলেন, ‘রাস্তাটি অনেক পুরনো। অনেক দুর্ভোগ হচ্ছে। গত বছর রাস্তাটির নামে আইডি করা হয়েছে। আমি এ গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটি পাকা করার চেষ্টা করছি।’

 

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মনির হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে সড়কটির কাজ হচ্ছে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী গ্রাম হচ্ছে শহর। এই উন্নয়ন গ্রামে গ্রামে ছড়িয়ে আছে। রাস্তাটি দ্রুত পাকাকরণের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved , sokalerbangla.com
Theme Customized BY LatestNews